আলোচিত ইস্যু গুলো
আন্তর্জাতিক নারী দিবস ২০১৩ এর নিউজগুলো

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে নারীদের অবদান
হাসানুজ্জামান ব্লগ
৭ মার্চ, ২০১৩
৭১ এর মুক্তিযুদ্ধ বাঙালীর হাজার বছরের ইতিহাসের সবচেয়ে গৌরবময় অধ্যায়। মুক্তিযুদ্ধ ছিল গণমানুষের যুদ্ধ। এই যুদ্ধে নারী পুরুষ নির্বিশেষে স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশ নিয়েছে। পরাধীনতার শেকল ভেঙে বাংলা মায়ের দামাল ছেলেরা, সাহসী মেয়েরা আমাদের দিয়ে গেছেন স্বাধীনতা। আমরা আজ স্বাধীন। স্বাধীন আমাদের মানচিত্র। নিজস্ব স্বকীয়তা এবং একখ- স্বাধীন ভূমির জন্য অকাতরে প্রাণ দিয়েছেন এ দেশের লাখো মানুষ। এক সাগর রক্তের বিনিময়ে আমরা পেয়েছি স্বাধীনতা। স্বাধীন রাষ্ট্র। আপন ভালোবাসার নিজস্ব পতাকা। এই মহান মুক্তিযুদ্ধে কেবল পুরুষ নয়, পুরুষের পাশাপাশি নারীও ছিল সক্রিয়। ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)
এভারেস্টে বাংলাদেশি নারী
ভালো খবর
১ মার্চ, ২০১৩
বাংলাদেশের প্রথম নারী হিসেবে এবার বিশ্বের সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ মাউন্ট এভারেস্টে লাল-সবুজ পতাকা ওড়ালেন নিশাত মজুমদার। প্রাথমিক তথ্য অনুযায়ী, ১৯ মে শনিবার নেপালের স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে নয়টায় তিনি ২৯ হাজার ২৯ ফুট (৮,৮৪৮ মিটার) উচ্চতার মাউন্ট এভারেস্টে আরোহণ করেন। তাঁর সঙ্গে ছিলেন বাংলাদেশের আরেক পর্বতারোহী এম এ মুহিত; তিনি দ্বিতীয়-বারের মতো এভারেস্ট জয় করলেন। বাংলাদেশের প্রথম নারী হিসেবে নিশাত মজুমদারের এভারেস্ট জয়ের খবর দেন বাংলা মাউন্টেনিয়ারিং অ্যান্ড ট্রেকিং ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা ইনাম আল হক। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, ‘নেপালের পেমবা ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)
এই নারী কি বাঙালি নারী!!
বাংলা নিউজ ২৪
৭ মার্চ, ২০১৩
ট্রেনে উঠলেন এক নবদম্পতি। ট্রেনের জানালা খুলেই বধূটি দেখতে পেলেন তরতাজা আমলকি বিক্রি হচ্ছে। দেখেই স্বভাবসুলভ ভঙ্গিতে আমলকি খাওয়ার আদুরে আবদার জানালেন স্বামীটির কাছে। স্বামী নববধূর ইচ্ছাপূরণের অভিলাষে নেমে গিয়ে আমলকি বিক্রেতাকে প্রথমেই জিজ্ঞেস করলেন, আমলকি ভালো কি না। তারপর কিনলেন। কিন্তু ততক্ষণে ট্রেন ছেড়ে দিয়েছে। বধূটি দরজার কাছে ছুটে এসে অধীরভাবে ট্রেন ধরতে দৌড়ে আসা স্বামীর দিকে তাকিয়ে বলছেন, ‘এসো...!’ কিন্তু যখন আমলকি নিয়ে স্বামী তার কাছে এলেন তখন স্বামীর হাত না ধরে আমলকির প্যাকেটটি নিয়ে নিলেন। মুহূর্তেই ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)
প্রতিবাদের ভাষা হোক প্রতিরোধ
নিউজ বাংলা
৭ মার্চ, ২০১৩
নারীর প্রতি সহিংসতা শুধু মানবাধিকারকেই লঙ্ঘন করে না।  একই সঙ্গে ব্যাহত করে পারিবারিক সম্প্রীতি, সামাজিক শৃঙ্খলা এবং জাতীয় উন্নয়ন। আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ উপলক্ষে নিবন্ধটি লিখেছেন সাকিলা মতিন মৃদুলা আমি ভাবছি কষ্টগুলো আমার একার, তুমি ভাবছ কষ্টগুলো তোমার একার। আর সে? কিংবা ওরা? সবাই নিজস্ব অবস্থানে নিজের মতো করে যার যার কষ্টের কথাই ভাবছে। 'নদীর এপার কহে ছাড়িয়া নিঃশ্বাস... ওপারেতে যত সুখ আমার বিশ্বাস'। বদলে গেছে দিন, বদলে গেছে ভাবনা। কষ্ট আজ আর কারও একার নয়। নদীর এপার, ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)
বাংলাদেশে নারীর অগ্রযাত্রা
বেঙ্গলি নিউজ ২৪
৩ মার্চ, ২০১৩
নারী-পুরুষ সমমর্যাদা প্রতিষ্ঠার চেষ্টা প্রায় দুই শতাব্দী ধরেই চলছে। তারপরও পুরুষতান্ত্রিক সমাজে নারী বিভিন্ন অজুহাতে অবহেলিতই থেকে গেছে। অগ্রগতি যে হয়নি তা নয়। তবে এর গতি অত্যন্ত মন্থর। ভোটাধিকারের কথাই ধরা যাক। অনেক উন্নত দেশেও শুধু পুরুষের ভোট দেয়ার অধিকার ছিল আজ থেকে ৫০ বছর আগেও। অনেক দেশে নারীর এ অধিকার প্রথম স্থানীয় নির্বাচনে দেয়া হয়। তাও আবার বিভিন্ন গোত্র ও নৃ-গোষ্ঠীকে এর বাইরে রাখা হয়েছে। ভোটে দাঁড়ানোর অধিকার পেয়েছে আরো অনেক পর। ইতিহাস পর্যালোচনা করলে দেখা যায়, নারীকে ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)
অর্থনীতিতে নারীর অবদান
ভালো খবর
৩ মার্চ, ২০১৩
সমাজ ও রাষ্ট্রে নারীরা নানা রকম বৈষম্যের শিকার। বৈষম্যের কারণে নারীরা তাদের প্রাপ্য অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। অথচ সমাজ, রাষ্ট্র ও সভ্যতার উন্নয়নে নারীর অবদান অনস্বীকার্য। কিন্তু নারীর এই অবদান যথাযথভাবে মূল্যায়ন করা সম্ভব হচ্ছে না। শিশুর যত্ন, রোগীর সেবা, ঘরের যাবতীয় কাজের দায়িত্ব পালনসহ প্রতিনিয়ত তারা অনেক দায়িত্বশীল ও গুরুত্বপূর্ণ কাজ করে যাচ্ছে। নারীদের গৃহস্থালির এসব কাজকে অদৃশ্য শ্রম হিসেবে বিবেচনা করায় তাদের এই অবদানকে মূল্যায়ন করা হচ্ছে না। কিন্তু তাদের এসব মজুরিবিহীন কাজ পরিবারে, সমাজে এবং দেশের ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)
চিকিৎসা গবেষণাগারে নারীদের অবদান
মনোজগত
১ মার্চ, ২০১৩
বিজ্ঞানসমমত গবেষণাগারের মাধ্যমে চিকিৎসাবিজ্ঞানের ক্ষেত্রে যে সকল নারী তাদের স্ব-স্ব ক্ষেত্রে কৃতিত্ব অর্জন করেছেন তাদের সশ্রদ্ধ চিত্তে স্মরণ করছি। Nettie Maria Stevens (1861-1912). Nettie Maria Stevens  সর্বপ্রথম আবিষকার করেন যে, বিভিন্ন বৈশিষ্ট্যসূচক ক্রোমোজোমের কারণে সন্তান ছেলে বা মেয়ে হবে তা নির্ধারিত হয়। কিন্তু জিনতত্ত্বের  এই শাখায় তার অবদানের যথার্থ মূল্যায়ন করা হয়নি। X ও Y ক্রোমোজোমের লিঙ্গ নির্ধারক ভূমিকাটি আবিষকারের ক্ষেত্রে সাধারণত তার নামোল্লেখ না করে অন্য দুজনের কথা বলা হয়। এদের একজন হলেন তার পূর্বসূরি Bryn Mawr College-এর অধ্যাপক Edmund B. Wilson তিনি নিজের তত্ত্ব প্রকাশের আগেই  Chromosomal Paltern-এর ওপর Stevens-এর পাণ্ডুলিপি পড়েছিলেন। দ্বিতীয় জন হলেন-জীববিজ্ঞানী T. H. Morgan। তিনি ও Wilson যৌথভাবে এই আবিষকারের জন্য নোবেল পুরস্কারে ভূষিত হয়েছিলেন। এমনকি  Stevens-এর মৃত্যুর পর মৌলিক আবিষকারক হিসেবে  Morgan তার সহকর্মীর প্রতি সমর্থন অব্যাহত রাখেন। Gertrude Bdle Elion (1918) ছিলেন ওষুধ বিজ্ঞান (Pharmacological) বিষয়ক গবেষণার একজন প্রধান কর্মী। কিন্তু পুরুষতান্ত্রিক কর্মজগতে একমাত্র মহিলা হিসেবে তার প্রবেশাধিকার সম্ভব হয়েছিল দ্বিতীয় ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)
সফল যে জন
নিউজ বাংলা
১ মার্চ ২০১৩
গতানুগতিকতা তাঁর পছন্দ নয়। নতুন কিছু, ভিন্ন কিছু তাঁকে টানে। ছোটবেলা থেকেই স্রোতের বিপরীতে চলতে চাইতেন। ধীরে ধীরে বড় হন। কিন্তু সেই আকর্ষণটা কমে না। বরং বাড়ে। ৪৩তম বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ। ১৯তম ক্যাডারের ১৮১ জন এতে অংশ নেন। চার মাসের এই আন্ত ক্যাডার প্রশিক্ষণ হয় বাংলাদেশ লোকপ্রশাসন প্রশিক্ষণকেন্দ্রে। এবারের প্রশিক্ষণে একটি নতুন ইতিহাস সৃষ্টি হয়। দীর্ঘ ১৯ বছর পর পুলিশ থেকে তিনজন মেধাতালিকায় স্থান পান। তাঁদের মধ্যে একজন নারীও আছেন। সম্মিলিতভাবে দ্বিতীয় হয়েছেন। প্রথমবারের মতো পুলিশ বিভাগ থেকে কোনো নারী ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)
বাংলাদেশের প্রথম নারী ছত্রীসেনা
বিবিসি
১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৩
সেনাবাহিনীর ক্যাপ্টেন জান্নাতুল ফেরদৌস মঙ্গলবার সকালে সিলেটের জালালাবাদ সেনানিবাসের কাছঅকাছি পানিছড়া এলাকায় বিমানবাহিনীর একটি বিমান থেকে প্যারাসুটের মাধ্যমে সফলভাবে মাটিতে অবতরণের মধ্য দিয়ে এই সম্মান অর্জন করলেন। সেই মুহুর্তটিতে সেখানে হাজির থাকতে সকাল দশটার আগেই সেনাবাহিনীর একটি হেলিকপ্টারে করে আমরা পৌছে যাই সিলেট ওসমানী অঅন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে। নেমেই চোখে পড়ে প্যারাট্রুপার দলের সদস্যদের অনুশীলন। কিছুক্ষণের মধ্যেই তারা উড়োজাহাজে আকাশে উড়বেন এবং ঝাঁপ দেবেন ভূমিতে। চলছিল তারই শেষ মুহুর্তের প্রস্তুতি। এই দলের চল্লিশ জনেরও বেশি সদস্যের সবাই পুরুষ, শুধু একজন ছাড়া। ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)
কণ্ঠে যাদের আগুন ঝরে
সমকাল
১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৩
ওদের কণ্ঠে ঝরছে দ্রোহ আর প্রতিবাদের স্ফুলিঙ্গ। জাদুকরি স্লোগানে উজ্জীবিত লাখো জনতা। শিশু-কিশোর, তরুণ-তরুণী, বৃদ্ধ-বৃদ্ধা সবাই তাদের কণ্ঠের জাদুতে বিমোহিত। ক্লান্তিহীন ঝাঁঝালো কণ্ঠের তেজোদীপ্ত হুঙ্কার ছড়িয়ে পড়ছে পদ্মা-মেঘনা-যমুনায়। টেকনাফ থেকে তেঁতুলিয়া। রূপসা থেকে পাটুরিয়া। শাহবাগের স্লোগানকন্যাদের কণ্ঠের উত্তাপে জ্বলন্ত আগ্নেয়গিরিও যেন হার মানছে। গতকাল সন্ধ্যার স্লোগান দিতে গিয়ে দুইবার অসুস্থ হয়ে পার্শ্ববর্তী বারডেম হাসপাতালে চিকিৎসা নেন অগি্নকণ্ঠি লাকী আক্তার। তবে অসুস্থতা তাকে আটকাতে পারেনি। রাতেই গণজাগরণ মঞ্চে ফিরে এসে স্লোগান ধরে লাকী বলেন, 'আন্দোলন চলবে। আমি সুস্থ আছি।' অনেক ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)
গাড়ি চালনায় এগিয়ে আসছেন নারী
বাংলা নিউজ ২৪
৫ ডিসেম্বর, ২০১২
অবরোধবাসিনী নন। সরকারি-বেসরকারি সব পেশাতেই তারা যোগ্যতার পরিচয় রাখছেন। এখন গাড়ি চালনায় যুক্ত হয়েছেন নারী। পেশাদার ও অপেশাদার দু’ভাবেই গাড়ি চালনায় তারা এগিয়ে আসছেন। নারীর অগ্রগতির এটি উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। নারীদের এই অগ্রগতি আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও প্রশংসিত হয়েছে, হচ্ছে। সব সেক্টরেই নারীরা এখন পুরুষের সঙ্গে তাল মিলিয়ে কাজ করছে। গাড়ি চালনার মতো রোমাঞ্চকর ও ঝুঁকিপূর্ণ পেশাতেও নারীদের উপস্থিতি দেশের বাইরে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করছে। কর্মসংস্থানের তাগিদ নারীদের পিছিয়ে রাখতে পারেনি। শুধু শখের বশে গাড়ি চালনা নয়, নারী এখন এ পেশায় যোগ ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)
ভাষা আন্দোলনে নারীর অবদান
প্রাইম খবর
২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৩
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তাঁর ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ গ্রন্থে জেলে অবস্থানকালে ভাষা আন্দোলন প্রসঙ্গে লিখেছেন : আমাদের এক জায়গায় রাখা হয়েছিল জেলের ভিতর। যে ওয়ার্ডে আমাদের রাখা হয়েছিল তার নাম চার নম্বর ওয়ার্ড। তিনতলা দালান। দেওয়ালের বাইরেই মুসলিম গার্লস স্কুল। যে পাঁচ দিন আমরা জেলে ছিলাম সকাল দশটায় স্কুলের মেয়েরা ছাদে উঠে স্লোগান দিতে শুরু করত, আর চারটায় শেষ করত। ছোট্ট ছোট্ট মেয়েরা একটুও ক্লান্তও হতো না। ‘রাষ্ট্রভাষা বাংলা চাই’, ‘বন্দি ভাইদের মুক্তি চাই’, ‘পুলিশি জুলুম চলবে না’ ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)
আলোর মিছিল ধেয়ে আসে ওই-প্রতিবাদী নিপা যৌতূকের বলি হলনা
ভালো খবর
১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৩
আমাদের জীবনে ব্যতিক্রমী ঘটনা নিতান্তই নগন্য। কিন্তু ব্যতিক্রমী কোনো ঘটনা পরিবর্তন ঘটাতে পারে সমাজে কিংবা পরিবর্তনের আলোচ্ছটা দেখাতে পারে মানুষকে। এরকমই একটি ঘটনা সম্প্রতি ঘটে গেলো বরগুনার আমতলীতে। ফারজানা ইয়াসমীন নিপা তালাক চাওয়ার প্রতিবাদে বিয়ের ১০ মিনিট পরই তালাক দেন তার স্বামীকে। ঘটনাটিকে বিচ্ছিন্ন বলে মনে হলেও ‘কন্যা সহায়িকা’ নিপা হতে পারে যৌতুকের বলি হওয়া কিংবা হতে চলা লাখও নারীর অনুপ্রেরণা। এই ঘটনা এবং সমাজ বাস্তবতা নিয়ে আমাদের মূল প্রতিবেদনটি লিখেছেন মেহেদী হাসান জুয়েল বিয়ে নামক সামাজিক চুক্তির মধ্য ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)
বাস্তবে বৈষম্যের শিকার নারীরা
নয়া দিগন্ত
৫ মার্চ, ২০১৩
মাও সে তুং নারীর শৃঙ্খলিত অবস্থা দেখে বলেছিলেন, ‘নারী হচ্ছে অর্ধেক আকাশ, সেই অর্ধেক আকাশ মেঘে ঢাকা থাকলে সূর্য আড়ালে পড়বেই।’ মাও সে তুংয়ের উক্তিটি জানতে পারি মিডিয়ার বদৌলতে, মহামতি ব্যক্তি কোন প্রসঙ্গে উক্তিটি করেছেন তা পুরোটা না জানলেও যেটুকু বুঝেছি হয়তো তিনি বলতে চেয়েছেন পৃথিবীর অর্ধেক জনগোষ্ঠীকে আড়ালে রেখে দেশ-রাষ্ট্র-সমাজ বা পরিবারের উন্নতি সম্ভব নয়। প্রতিটি ক্ষেত্রে মুখে আমরা সমতার কথা বলতে চাই বা শুনি, কিন্তু বাস্তবের চিত্র থাকে আলাদা। নারীর ক্ষেত্রে এর রূপ ভয়াবহ। ঘর থেকে সংসদ অধিবেশন, খেলার মাঠ থেকে বিশ্বকাপ, বাংলাদেশ থেকে সুদূর চীনে বৈষম্যের শিকার নারীরা। এখন পর্যন্ত চীন তাদের লিঙ্গ বৈষম্যহীন সমাজ বলে গর্ববোধ করে। কিন্তু বাস্তবের পথ অনেকটাই আলাদা। ১৯৮০-এর দশকে নতুন অর্থনৈতিক যুগ সূচিত হওয়ার পর থেকেই চীনা নারীদের ভাগ্যের চাকা দ্রুত ঘুরছে। সেই চীনা নারীরাই বলছে শুধু নারী নয়, নারীর জন্য পুরো সমাজই বৈষম্যহীন। চীনা নারীদের সব অধিকার আছে তবে সেটা কাগজে-কলমে। সেখানে বাংলাদেশের নারীর অবস্থা আজো হতাশা আর আতঙ্কের ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)
ইসলাম প্রতিষ্ঠায় নারীর অংশগ্রহণ
ছাত্র সংবাদ
৩ মার্চ, ২০১৩
ইসলাম সমগ্র মানবজাতির জন্য স্রষ্টাপ্রদত্ত একমাত্র নির্ভুল জীবনব্যবস্থা। স্রষ্টাপ্রদত্ত এ নির্ভুল জীবনব্যবস্থা সমগ্র মানবজাতির জন্য একমাত্র সার্বিক কল্যাণকর জীবনব্যবস্থা। ইসলাম ছাড়া দুনিয়ায় যত ধর্ম, মত, পথ, ইত্যাদি সৃষ্টি হয়েছে, সমস্ত মানুষের মনগড়া ধর্ম, মনগড়া মতবাদ। মানুষের মনগড়া ধর্ম, মনগড়া মতবাদ, কোনকালেই মানবজাতির কোন কল্যাণ দিতে পারেনি, এখনো পারছে না, আর কোনো কালে পারবেও না। বরং মানবরচিত এসব মনগড়া ধর্ম, মনগড়া মতবাদ চিরকাল মানুষকে শোষণ করেছে, নির্যাতন করেছে ও অত্যাচার করেছে। একমাত্র স্রষ্টাপ্রদত্ত ইসলাম তার ব্যতিক্রম। স্রষ্টাপ্রদত্ত, সর্বশেষ ঐশীগ্রন্থ আল ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)
নারী কাজ করে পুরুষের দ্বিগুন!
বাংলা নিউজ
৩ মার্চ, ২০১৩
আফ্রিকা, এশিয়া এবং ল্যাটিন আমেরিকায় এমন লক্ষ লক্ষ নারী আছে, যাদের দিন শুরু হয় ভোর সাড়ে চার বা পাঁচটায়। এর পরবর্তী ষোল ঘন্টা তারা ব্যয় করে পরিবারের মৌলিক চাহিদা মেটানোর পিছনে, যার মধ্যে আছে খাবার তৈরী, পানি আনা নেওয়া, জ্বালানী সংগ্রহ, কাপড়চোপড় ধোঁয়া-গোছানো থেকে শুরু করে নিত্যপ্রয়োজনীয় সবকিছু। এই হিসেবে সপ্তাহে তাদের কাজের পরিমাণ একশ ঘন্টারও ওপরে! এইসময়গুলো মূলতঃ ব্যয় হয় দুই ধরণের কাজে, গৃহস্থালী কাজ আর কৃষিকাজ। জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষিসংস্থা(FAO) এর হিসাবমতে, মোট খাদ্য উৎপাদনে নারীদের অবদান ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)
আত্মবিশ্বাসী তাসলিমার সাফল্যের গল্প
সাপ্তাহিক
১ মার্চ, ২০১৩
শহর ছাড়িয়ে গ্রামের অনেক মহিলাই নিজ উদ্যোগে উদ্যোগী হয়ে সাফল্য লাভের চেষ্টা করছেন। তারাও এখন সমানতালে পাল্লা দিচ্ছেন পুরুষদের সঙ্গে। পরিবারে সংসারের খরচের জন্য একমাত্র পুরুষরাই যে আয় করবেন। এতদিনের সেই ধারণাই এখন অনেক মহিলাই ভাঙ্গার চেষ্টা করছেন। তারা চেষ্টা করছেন পুরুষদের পাশাপাশি নিজেরাও কিছু বাড়তি আয় করার। যেন পরিবারের সাংসারিক খরচে নিজেদের অবদান রাখতে পারেন। এমন আত্মবিশ্বাসী হয়ে সাফল্য লাভের চেষ্টা করছেন দেশজুড়ে অনেক মহিলাই। শহর ছাড়িয়ে গ্রামগঞ্জে এই রকম অসংখ্য মহিলার সাফল্যের গল্প রয়েছে। ঠিকমতো প্রচার না ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)
বাংলাদেশে নারীর ক্ষমতায়ন
ইত্তেফাক
২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৩
জগতের যত বড় বড় জয়, বড় বড় অভিযান, মাতা ভগ্নি ও বধূদের ত্যাগে হইয়াছে মহিয়ান। কাজী নজরুল ইসলামের চরণদু'টিই প্রমাণ করে জগতের প্রত্যেকটি সাফল্য, প্রত্যেকটি বিজয়, প্রত্যেকটি সৃষ্টির পেছনে নারীর অবদান কোনো না কোনো ভাবে আছে। নারী মমতাময়ী আশ্রয়ে শিশুকে বড় করেছে, পুরুষের পাশে থেকে প্রেরণা যুগিয়েছে, ভ্রাতৃবন্ধনে সহোদরকে এগিয়ে যেতে পাথেয় যুগিয়েছে। নারীর সাহসে পুরুষ আকাশ জয় করেছে, হিমালয়ে উঠেছে, সমুদ্র পাড়ি দিয়েছে। তবে নারীরা যে শুধু পুরুষকে প্রেরণা, ভালোবাসা, আনন্দ দিয়েছে তেমনটি নয়, সঙ্গে সঙ্গে বিভিন্ন সময়ে নারী পালন করেছে নেতৃস্থানীয় ভূমিকা। উপমহাদেশের নারীনেত্রী ইলা মিত্র দেখিয়েছেন কীভাবে পরাধীনতার বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে হয়, প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদার দেখিয়েছেন কীভাবে শত্রুর বিরুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়তে হয়, শহীদ জননী জাহানারা ইমাম দেখিয়েছেন কীভাবে রাজাকারদের বিচার করতে হয়। বাংলাদেশ পৃথিবীর ক্ষুদ্র একটি জনবহুল দেশ। অত্যন্ত জনসংখ্যার চাপ, দুর্নীতি, গুম-হত্যা ও নারী নির্যাতনসহ বিভিন্ন সমস্যায় জর্জরিত দেশটি। এতকিছুর পরেও দেশটি এগিয়ে যাচ্ছে। পশ্চিমারা ধারণা করছেন আগামীতে দেশটি অতিসত্বরই উন্নত রাষ্ট্রের সমপর্যায়ে চলে আসবে। তবে ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)
সম্ভাবনার স্বপ্নসোপান-ক্যাডার সার্ভিসে বাড়ছে নারী কর্মকর্তা।
ভালো খবর
৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৩
এমন সংবাদ শিরোনাম হয়ে আসা মানেই নতুন আলোর হাতছানি। এই হাতছানি নতুন করে রঙিন করে তুলবে তিল তিল করে গড়ে তোলা বাংলাদেশকে। সেই সময়ছোঁয়া আগামীর এই পথচলা থেকে জানা যায়, নারীরা এগিয়ে আসছে একটি সুন্দর সকালের লক্ষ্যে। আর সেই সূত্র থেকে বাঙালি নারীদের জন্য সুসংবাদ হলো সর্বশেষ ৩০তম বিসিএসে নারী ৩১ দশমিক ৪৩ শতাংশ। বিসিএস ক্যাডারে নারী কর্মকর্তাদের সংখ্যা বাড়ছে। এই নিয়ে লিখেছেন মোমিন মেহেদী   ক্যাডার সার্ভিসে বাড়ছে নারী কর্মকর্তা। এমন সংবাদ শিরোনাম হয়ে আসা মানেই নতুন আলোর ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)
ইতিহাস গড়ে - দেশের প্রথম নারী ট্রেনচালক সালমা
ভালো খবর
৫ জানুয়ারি, ২০১৩
সালমা খাতুন ট্রেন চালান, এটা এখন পুরনো কথা। বাংলাদেশ রেলওয়ের একমাত্র নারী সহকারী ট্রেনচালক সালমা খাতুন আট বছর আগে ২০০৪ সালের ৮ মার্চ চাকরিতে যোগ দেন।   তার গ্রামের বাড়ি টাঙ্গাইল জেলার ভূঞাপুরের অর্জুনা গ্রামে। বাবা প্রয়াত বেলায়েত হোসেন খান। মা সায়েরা বেগম। তিন ভাই, দুই বোনের মধ্যে সালমা খাতুন চতুর্থ। দিনে-রাতে কত নগর, বন্দর, গ্রামকে পেছনে ফেলে হুইসেল বাজিয়ে ছুটে চলে সালমা খাতুনের ট্রেন, কিন্তু সালমাকে কেউ পেছনে ফেলতে পারবে না। তিনি বাংলাদেশের প্রথম নারী ট্রেনচালক। তিনি অর্জুনা ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)
উন্নয়নের পথে নারীর অবদান
ইত্তেফাক
১৭ ডিসেম্বর, ২০১২
  নারীর উন্নতি বিষয়ে কেবল বাক্য দ্বারা কোনো মীমাংসায় আসা সম্ভব নয়। নারীর নিজেকে যেমন নিজের প্রতিষ্ঠার জন্য দৃঢ়প্রতিজ্ঞ থাকতে হবে, তেমনি সমাজের বিভিন্ন অঙ্গনের মানুষের মধ্যে থাকতে হবে সচেতনতা। বিশেষ করে শিক্ষার উন্নয়ন ও কর্মদক্ষতা বৃদ্ধির জন্য এগিয়ে আসা উচিত নারী-পুরুষ নির্বিশেষে সব মানুষের, কারণ, সর্বস্তরের উত্কর্ষ ছাড়া সমাজের সার্বিক উন্নতি সম্ভব নয়। সদ্য অতিক্রান্ত হলো বেগম রোকেয়া দিবস। বাংলার নারী জাগরণের অগ্রদূত বেগম রোকেয়ার প্রতি সম্মান প্রদর্শন ও নারী-অধিকার প্রতিষ্ঠার বিষয়টিকে আরও এগিয়ে নিয়ে যাবার লক্ষ্যে প্রদান ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)
শান্তি প্রতিষ্ঠায় নারীর অবদান ও তার স্বীকৃতি
সংগ্রাম
১২ অক্টোবর, ২০১১
তিন নির্ভীক নারী অধিকার আন্দোলন নেত্রীকে ২০১১ শান্তি পুরস্কার অর্পণ করতে গিয়ে নোবেল কমিটি ঘোষণা করে নারী-নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠার এবং শান্তি প্রতিষ্ঠার আন্দোলনে নারীদের পূর্ণ অংশগ্রহণের অধিকার আদায়ের অহিংস সংগ্রামে শরিক তিন পুরস্কার বিজয়ীনীকে নোবেল কমিটি অভিবাদন জানাচ্ছে। আফগানিস্তানে যুদ্ধ শুরুর দশম বার্ষির্কী যখন উদযাপিত হচ্ছে ঠিক সেই সময়েই নোবেল কমিটি প্রদত্ত এই ঘোষণাকে গুরুত্বপূর্ণ বলতে হবে। সামাজিক পরিবর্তন সংঘটনের লক্ষ্যে তিন নোবেলবিজয়িনীর আন্দোলন নিঃসন্দেহে বহু আঙ্গিকে আফগান যুদ্ধ ভাবনার পরিপন্থী। বহিরাগত শক্তি বন্দুকের জোরে আফগানিস্তানে গণতন্ত্র প্রবর্তনে তৎপর রয়েছে। ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)
আঙুল কেটে ফেলা হলেও স্বপ্নের মৃত্যু হতে দেব না’
নিউজ বাংলা
৭ মার্চ, ২০১৩
‘শুধু স্বামীর অবাধ্য হয়ে লেখাপড়া চালিয়ে যাওয়ার কারণে আঙুল হারাতে হয়েছে। ও (স্বামী) হয়তো ভেবেছিল, আঙুল কেটে নিলে আমার পক্ষে আর লেখাপড়া করা সম্ভব হবে না। পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ হারাব। আমি এই ধারণা মিথ্যা প্রমাণ করতে চাই। পরীক্ষা দিয়ে প্রমাণ করতে হবে, আঙুল না থাকা বড় সমস্যা, কিন্তু পরীক্ষা দেওয়া যায়।’ কথাগুলো বলছিলেন হাওয়া আক্তার।পরিবারের আপনজনের কাছে সে জুঁই। সদ্য স্বামীর বর্বরতার শিকার হয়ে ডান হাতের সব আঙুল হারিয়েছেন। জুঁই এবার নরসিংদী সরকারি কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা দেবেন। আঙুল ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)
ইসলামে নারীর মর্যাদা ও অধিকার
লাল গোলাপ
৭ মার্চ, ২০১৩
আলোকিত পৃথিবীতে নর ও নারীর অবদান সবচাইতে বেশী। নারীর মর্যাদা ও অধিকার প্রতিষ্ঠায় বিশ্বজুড়ে আলোচনা সমালোচনার শেষ নেই। অথচ এই নারীকে মহিমান্বিত কে করেছে তা এখনো অনেক নারী অবগত নন। ফলে তাদের অধিকার প্রতিষ্ঠার নামে ভয়াবহ বিপদের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। পৃথিবীতে ইসলামই সর্বপ্রথম নারীদের যথাযোগ্য সম্মান ও অধিকার প্রতিষ্ঠিত করেছে। ইসলাম পূর্বযুগে নারীদের মানুষ হিসেবে গন্য করা হতো না। স্ত্রী হিসেবে তারা ছিল চরম অবহেলার স্বীকার। কন্যা সমত্মান জন্মগ্রহণকে সামাজিক কলঙ্কের বোঝা মনে করে জীবমত্ম কবর দেয়া হতো। সমাজে ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)
বিশ্বনাথের রুশনারা: বাংলাদেশের কণ্ঠস্বর
ভালো খবর
৫ মার্চ, ২০১৩
মাত্র সাত বছর বয়সে যে মেয়েটি অভিবাসী হয়ে পাড়ি জমিয়েছিল ব্রিটেনে। সেই মেয়েটি বাংলাদেশের ১৬ কোটি মানুষের কণ্ঠ হয়ে মুক্তির পথ দেখাচ্ছে। জন্মস্থানের মাটির গন্ধ তাকে বার বার টেনে আনে বাংলাদেশে।   শুধু তাই নয় নিজ ভূমি সিলেটে এসে তিনি সিলেটের আঞ্চলিক ভাষায় বক্তৃতাও দেন। হাউজ অব কমনসে তিনিই প্রথমবারের মতো বাঙালি এমপি নির্বাচিত হয়ে ইতিহাস সৃষ্টি করেছেন।   জলবায়ু পরিবর্তনের অভিঘাত মোকাবেলায় সহযোগিতার জন্য বিশ্বশক্তির কাছে বাংলাদেশকে উপস্থাপন করবেন রুশনারা। তিনি চাপ সৃষ্টি করবেন ব্রিটেনে বাংলাদেশের মতো উন্নয়নশীল ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)
নভেরা আহমেদ : বাংলাদেশের ভাস্কর্যে তার অবদান
আর্ট বাংলা
৩ মার্চ, ২০১৩
নভেরা আহমেদ বাংলাদেশের শিল্পকলা তথা ভাস্কর্য শিল্পের ক্ষেত্রে এক উজ্জ্বল নক্ষত্র। দীর্ঘ সময় ধরে চলতে থাকা সামাজিক ও রাজনৈতিক অস্থিরতা, এবং পাকিস্তানি মৌলবাদী ভাবাদর্শের কারণে ভাস্কর্য চর্চার অনুপুস্থিতির পর ৬০ এর দশকে আকস্মিক বিস্ফোরনের মতই নভেরার উত্থান ঘটে এদেশের শিল্পাঙ্গনে। আধুনিক ভাস্কর্য চর্চাই ছিলো তার সকল মনোযোগের কেন্দ্রবিন্দু। পরিচয়: জন্ম ১৯৩০ বলকাতায়, পিতার আদি নিবাস চট্টগ্রামে। কলকাতা লরেটো স্কুল থেকে মেট্রিকুলেশন পাশ করার পর ১৯৫০ সালে লন্ডন যান। সেখানে তিন ভাস্কর্যের উপর একটি ডিপ্লোমা কোর্স করেন। নভেরার জš§ একটি ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)
হে নারী, অধিকার অর্জন করে নিতে হয়
নিউজ বাংলা
৩ মার্চ, ২০১৩
কোন সমাজ, দেশ ও জাতির উন্নতির পূর্বশর্ত হচ্ছে নারী উন্নয়ন। নারীকে প্রাতিষ্টানিক শিক্ষায় শিক্ষিত করার সাথে সাথে প্রকৌশলী ও প্রযুক্তিগত শিক্ষায় সুশিক্ষিত করে গড়ে না তুলা পর্যন্ত জাতীয় উন্নতির স্বপ্ন স্বপ্নই থেকে যায়। একজন নারীকে শিক্ষিত করে গড়ে তোলার পিছনে সামাজিক তীব্র তাগিদ আছে এই অর্থে যে, আগামী প্রজন্মের সমুজ্জ্বল ভবিষ্যৎ প্রত্যাশায়।  এবং প্রজন্মরা উজ্জ্বল ভবিষ্যতে প্রবেশ করতে পারলে দেশ ও জাতি প্রগতির পথে দুর্নিবার গতিতে চলতে থাকবে। আর তাই একজন শিক্ষিত মা সংসারের আরো দশটি কর্মের মধ্যে তার ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)
এগিয়ে যাচ্ছে নারী- রাজপথে বাইকে
ভালো খবর
১ জানুয়ারি, ২০১৩
ব্যস্ত ঢাকার রাস্তায় হঠাৎ চোখে পড়ে তাঁদের।হাতে গোনা কয়েকজন। মোটরসাইকেল চালাচ্ছেন। একটা সময় ঢাকার বাইরে বেসরকারি সংস্থার কয়েকজন মেয়েই শুধু মোটরসাইকেল চালাতেন। সেই অবস্থার পরিবর্তন হয়েছে। সংখ্যা কম হলেও রাজধানীতে কয়েকজন মেয়ে তাঁদের প্রতিদিনের বাহন হিসেবে বেছে নিয়েছেন মোটরসাইকেল। কথা হলো এ রকম কয়েকজনের সঙ্গে।   যেকোনো পোশাক পরেই চালানো যায় নেদা শাকিবা প্রকল্প ব্যবস্থাপক, ওয়ার্ল্ড মার্কেটিং সামিট কোম্পানি লিমিটেড ‘ছোটবেলা থেকে শখ ছিল মোটরসাইকেল চালানোর। বাবার হাত ধরেই শেখা। এরপর সেভাবে আর চালানো হয়নি। ২০০৫ সালে গাড়ি ও ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)
অর্ধেক তার করিয়াছে নারী
প্রথম আলো
২৩ নভেম্বর, ২০১২
স্বাধীনতার চার দশক উত্তরণের সামগ্রিক পটভূমিতে এ অঞ্চলের একটি দরিদ্র দেশ হওয়া সত্ত্বেও বাংলাদেশের অর্জনকে শ্রীলঙ্কা ও ভারতের কেরালার পরই স্থান দিয়েছে বিশ্বব্যাংক উন্নয়ন প্রতিবেদন (২০০৮)। উল্লেখ্য, ২০১১ সালের মানব উন্নয়ন সূচকে আগের বছরের তুলনায় বাংলাদেশকে ১৭ ধাপ পেছনে দেখানো হয়েছে মূলত সূচক নির্ধারণের মানদণ্ডে পরিবর্তন ও দেশের জনসংখ্যা বৃদ্ধির কারণে। পার্শ্ববর্তী দেশগুলোর সূচকের তুলনায় বাংলাদেশের অভাবনীয় অর্জন প্রকারান্তরে নারীর ক্ষমতায়নের ইঙ্গিত বহন করে। কারণ প্রথাগতভাবে আর্থসামাজিক অধস্তনতার শিকার হওয়া সত্ত্বেও সরকারের কিছু নারীবান্ধব নীতি ও বেগবান নারী আন্দোলনের ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)
নারী নির্যাতন রোধে পুরুষের ভূমিকা
ডেসটিনি
১ জুলাই, ২০১২
পরিবার ও রাষ্ট্রীয় বাস্তবায়নে নারীর ভূমিকা নতুনভাবে মূল্যায়িত হওয়ায় নারীর মর্যাদার প্রশ্নে ভিন্ন চিন্তাচেতনা সূচিত হয়েছে। পরিবার গঠনে নারীর ভূমিকা সন্তানের আচরণ ও চেতনার বিকাশে স্ত্রীর ভূমিকা শিক্ষিত পুরুষকে স্ত্রী তথা নারীর মর্যাদা সমুন্নত রাখতে আগ্রহী করে তোলে। এর মাধ্যমে নারী নির্যাতন ও এর কারণগুলো সকলের সামনের উচ্চকিত হয় এবং নির্যাতন প্রতিরোধে নানা উদ্যোগ পরিচালিত হয়। তবে সামগ্রিকভাবে নারী নির্যাতনে মৌলিক পরিবর্তন আসেনি। কাজেই নারীর মর্যাদা প্রতিষ্ঠার জন্য এবং নারী নির্যাতন রোধে আমাদের পুরুষদের এগিয়ে আসতে হবে। বিদ্রোহী কবি ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)
বিজ্ঞানে নারীদের অবদান
মুক্তমনা
১০ মার্চ, ২০১১
মানব সভ্যতার শুরু থেকে বর্তমান সময় পর্যন্ত অসংখ্য উত্থান-পতনের ইতিহাস আছে। যার প্রথমটা জুড়ে নারী পুরুষের অবদান ছিল সমান। অনুমান করা হয় আগুনের আবিষ্কার বা গার্হস্থ্যায়ন করেছে নারী। যদি তা নাও হয় নারীরাই আগুন ও তাপ নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে খাদ্য সংরক্ষণ করতে শিখেছে। নারীদের হাতেই ১৫ থেকে ২০ হাজার বছর আগে কৃষিকাজের সূচনা হয়। সমাজকে মৃৎপাত্র তৈরির রাসায়নিক প্রক্রিয়া, সুতা কাটার পদার্থবিদ্যা, তাঁতের প্রযুক্তি এবং শন ও তুলার উদ্ভিদবিদ্যার জ্ঞানদানের কৃতিত্ব শুধুমাত্র নারীদের। নারীরাই প্রথম চিকিৎসক, শিল্পী, প্রকৌশলী। নারীদের বাসস্থান শুধু রন্ধনশালা ও সেলাইকক্ষ দিয়ে সাজানো ছিল না। নিজ বাসগৃহে তারা তৈরি করেছে বিজ্ঞান গবেষণাগার। বুঝতে শেখার পর থেকেই কারও কারও মনে এই প্রশ্নটি উদ্ভুত হওয়া স্বাভাবিক: মানব সভ্যতার ইতিহাসে নারীদের সংখ্যা এত নগন্য কেন? যেভাবেই হোক এক্ষেত্রে আরো অনেক নারীকে খুঁজে পাওয়া যাবে। অথচ ইতিহাসবেত্তারাই মানব সভ্যতার ইতিহাস লিখতে গিয়ে বার-বার তা এড়িয়ে গিয়েছেন। ইতিহাসের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত লক্ষ্য করা গেছে বিজ্ঞান, গণিতশাস্ত্র ও চিকিৎসাবিজ্ঞান সর্বত্রই নারীরা ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)
বালিকা বিয়ে কমছে না
প্রথম আলো
৮ মার্চ, ২০১১
সম্প্রতি প্রকাশিত ইউনিসেফের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তিনজন কিশোরীর মধ্যে দুজনের বিয়ে হচ্ছে ১৮ বছরের আগে। বেশি বাল্যবিবাহ হয় এমন দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান তৃতীয় স্কুলের পথ বদলে বই-খাতা ফেলে বালিকারা বাধ্য হয় স্বামীর ঘরে যেতে। কেউ বা বালিকাবধূ হিসেবে ঘর করে অতিকষ্টে, কেউ বা বিতাড়িত হয়ে ‘স্বামী পরিত্যক্তা’। সরকারি-বেসরকারি পর্যায়ে ব্যাপক কর্মসূচি আর আইন থাকলেও দেশে বালিকা বিয়ে কমছে না। পিছিয়ে পড়া গ্রামগুলোতে এ বিয়ে এখন ঘরে ঘরে। এ দেশে ৬৪ শতাংশ বালিকার ১৮ বছরের আগে বিয়ে হয় বলে ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)
বাংলাদেশের নারীদের আজকের অবস্থায় আসার পেছনে আছে কয়েকজন মহীয়সীর অবদান। তাঁদের নিয়েই এই কলাম
কালের কন্ঠ
২ এপ্রিল, ২০১০
খায়রন্নেসা খাতুন (১৮৭৪-১৯১০) 'মুসলিম সমাজের মহিলা এমন সুন্দর প্রবন্ধ ও কবিতা লিখতে পারেন, পূর্বে ধারণা ছিল না।' খায়রন্নেসা খাতুনের একমাত্র বই 'সতীর পতিভক্তি' সম্পর্কে দেবীপ্রসন্ন রায় চৌধুরী সম্পাদিত সাহিত্য পত্রিকা 'নব্যভারতে' এ মন্তব্য করা হয়। ১৮৯৫ সালে হোসেনপুর বালিকা বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার পর এর প্রধান শিক্ষিকা নির্বাচিত হন খায়রন্নেসা। তাঁর স্বামীর ছিল বদলির চাকরি। কিন্তু খায়রন্নেসা বেশির ভাগ সময় বিদ্যালয়ের কারণে থাকতেন সিরাজগঞ্জেই। অজপাড়াগাঁয়ে কুসংস্কারাচ্ছন্ন সমাজে একটা বিদ্যালয় টিকিয়ে রাখতে তাঁকে পোহাতে হয় অবর্ণনীয় দুর্ভোগ। এমনও শোনা গেছে, স্কুলের খরচ ...
(বিস্তারিত) (মূল লেখা)

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত অনলাইন ঢাকা গাইড -২০১৩